May 18, 2024, 10:31 am
Headline :
প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন আব্দুল হামিদ। মাই টিভির ১৫ বছরে পদার্পণ উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল। সোনারগাঁয়ে দরিদ্র জনগোষ্ঠীর মাঝে ঈদ সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণ করেন মিছির আলী ফাউন্ডেশন। সোনারগাঁওয়ে গণপিটুনিতে নিহত ডাকাতদের পরিচয় মিলেছে।  ছেলে হারা মায়ের আর্তনাদ আজিজ গংরা আমার ছেলেকে মেরে ফেলেছে,আমি তাদের ফাঁসি চাই। নারায়ণগঞ্জ বন্দরে ১০ হাজার পিস ইয়াবাসহ জাহিদুল নামে এক যুবক আটক।  ফেইসবুক ইনস্টাগ্রামের এর সার্ভার ডাউন সারা বাংলাদেশে। নারায়ণগঞ্জের যেসব এলাকায় ১৬ ঘণ্টা গ্যাস থাকবে না। মোয়াজ্জেম হোসেন জুয়েলকে জনকল্যাণ সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত করায় বজলুর রহমান সিআইপি কে শুভেচ্ছা জানিয়েছে সাতগ্রামের যুব সমাজ। সামাজিক সংগঠন জনকল্যাণ সমিতির নবগঠিত কমিটির সভাপতি বজলুর রহমান সিআইপি সাধারণ সম্পাদক আউয়াল। 

সোনারগাঁয়ে প্রশাসনের নির্দেশনা অমান্য করে আবারো বালু উত্তেলন।

শেয়ার করুন

সোনারগাঁও প্রতিনিধিঃ

নারায়নগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ উপজেলায় রয়েছে সরকার নির্ধারিত ২টি বালু মহাল। ‘চররমজান সানাউল্লাহ-৬ ও আনন্দ বাজার বালু মহাল।

প্রতি বছর নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসন উক্ত বালু মহল গুলো বৈশাখ মাস হইতে চৈত্র মাস পর্যন্ত একসনা ইজারা দিয়ে থাকেন। বাংলা ১৪২৫ সালে আনন্দ বাজার বালু মহাল প্রায় ৪০ লক্ষ টাকা ও ১৪২৬ সালে ৮০ লক্ষ টাকায় ইজারা দেওয়া হয়েছিল। অপরদিকে চররমজান সোনাউল্লাহ-৬ বালু মহালের কোন ইজারাদার পাওয়া যায়নি।

করোনার কারনে চলতি বছর ১৪২৭ বাংলা সালে কোন ইজারাদার দরপত্রে অংশ গ্রহণও করেনি। তাই প্রশাসন থেকে কাউকে নতুন করে ইজারাও দেওয়া হয়নি।এমতাবস্থায় ইজারা না থাকার সুযোগে,বর্তমানে আনন্দ বাজার বালু মহালে দিনে রাতে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের মহোৎসব চলছে। এতে করে নদীর তীরবর্তী স্থানে দেখা দিয়েছে ভাঙন। বসবাসকারী স্থানীয় জনগন আছেন আতংকে,কখন ভিটেমাটি নদীর গহ্বরে চলে যায়। এই বিষয়ে গ্রামেবাসী খুবই উত্তেজিত। এবং ক্রমেই এলাকা উত্তপ্ত হচ্ছে। যে কোন সময় আবারও হতে পারে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ।

উল্লেখ্য যে,আনন্দ বাজার বালু মহালে অবৈধ বালু উত্তোলন নিয়ে ইতিপূর্বে দুই গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে গত ডিসেম্বরে (২০১৯) জাকির হোসেন নামে একজন খুন হয়।

সরেজমিনে দেখা যায়, বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়নের আমান গ্রুপের সামনে মেঘনার আলো ড্রেজার, মদিনার আলো ড্রেজার, নবীজির দয়া, এম এম সাহা সহ প্রায় ৮/৯ টি ড্রেজার দিয়ে বসত এলাকার সামান্যতম দূরত্বে নদীর তলদেশ থেকে বালু উত্তোলন করছে একদল বালুসন্ত্রাসী ।

জানা যায় যুবলীগ নেতা নামধারী রুবায়েত হোসেন শান্তর নেতৃত্বে আল আমিন,আমির,রনি,জনি,মানিক সহ একটি সিন্ডিকেট দিনে রাতে চব্বিশ ঘণ্টা উল্লেখিত বালুমহাল থেকে বালু চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে। বৈদ্যের বাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জানান,আমি বারবার প্রশাসনকে জানানোর পরেও প্রশাসন উক্ত বালু উত্তোলন বন্ধে কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না। এলাকাবাসী জানান প্রতিদিন ১৫০ হইতে ২০০ টি ভাল্কহেডের মাধ্যমে এখান থেকে বালু অবৈধ ভাবে উত্তোলন করে নিয়ে যাচ্ছে বালু দস্যুরা,রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার।আর নদী গহ্বরে বিলীন হয়ে যাচ্ছে ভিটে সহ শতশত বসতবাড়ি।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার কে ফোন করে জানতে চাইলে তিনি জানান,অবৈধ ভাবে বালু উত্তেলনের কথা শুনেছি,
স্থল ও নৌ-পুলিশকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আমরা খুব শীগ্রই অভিযান পরিচালনা করে ব্যাবস্থা নিবো।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Our Like Page