June 17, 2024, 1:04 pm
Headline :
সোনারগাঁয়ে  এক যুবককে  কুপিয়ে হত্যা। নারায়ণগঞ্জ বন্দরে ভূমিসেবা সপ্তাহ উদ্বোধন ও বর্ণাঢ্য র‍্যালি। প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন আব্দুল হামিদ। মাই টিভির ১৫ বছরে পদার্পণ উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল। সোনারগাঁয়ে দরিদ্র জনগোষ্ঠীর মাঝে ঈদ সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণ করেন মিছির আলী ফাউন্ডেশন। সোনারগাঁওয়ে গণপিটুনিতে নিহত ডাকাতদের পরিচয় মিলেছে।  ছেলে হারা মায়ের আর্তনাদ আজিজ গংরা আমার ছেলেকে মেরে ফেলেছে,আমি তাদের ফাঁসি চাই। নারায়ণগঞ্জ বন্দরে ১০ হাজার পিস ইয়াবাসহ জাহিদুল নামে এক যুবক আটক।  ফেইসবুক ইনস্টাগ্রামের এর সার্ভার ডাউন সারা বাংলাদেশে। নারায়ণগঞ্জের যেসব এলাকায় ১৬ ঘণ্টা গ্যাস থাকবে না।

সাংবাদিক গোলাম রাব্বানী নাদিম হত্যার প্রতিবাদে সোনারগাঁয়ে সাংবাদিকদের বিক্ষোভ ও মানববন্ধন।

শেয়ার করুন

 

নিজস্ব প্রতিবেদক:পারভেজ আহম্মেদ 

জামালপুরের সাংবাদিক গোলাম রাব্বানী নাদিম হত্যার প্রতিবাদ ও দোষীদের দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবিতে নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁয়ে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সোমবার (১৯ জুন) দুপুরে সোনারগাঁ উপজেলায় কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দের আয়োজনে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের মোগরাপাড়া চৌরাস্তায় অনুষ্ঠিত ওই কর্মসূচিতে অংশ নেন উপজেলার সকল প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার গণমাধ্যমকর্মীরা। মানববন্ধনে দৈনিক ভোরের কাগজ ও সোনারগাঁও রিপোর্টাস ক্লাবের সভাপতি আব্দুস সাত্তারের সঞ্চালনায় এসময় বক্তব্য রাখেন, কালের কন্ঠের সাংবাদিক গাজী মোবারক,সোনারগাঁও জার্নালিস্ট ক্লাবের সভাপতি শেখ এনামুল হক বিদ্যুৎ, সাধারণ সম্পাদক শওকত ওসমান সরকার রিপন,সাংবাদিক ফারুক হোসেন,সোনারগাঁ সিটি প্রেসক্লাবের সভাপতি দ্বীন ইসলাম অনিক,সাধারণ সম্পাদক মোঃ নুর নবী জনি,সাংগঠনিক সম্পাদক হাবীবুর রহমান,সিরাজুল ইসলাম, মাজহারুল ইসলাম,কামরুল ইসলাম,শেখ ফরিদ, শাহজালাল,সামির,ইমরান,সিফাত,ফাহাদুল,মনির, আজকের বিজনেস বাংলাদেশ ও এসিয়ান টিভির বন্দর প্রতিনিধি পারভেজ আহম্মেদ প্রমূখ।
মানববন্ধনে সাংবাদিকরা বক্তব্যে বলেন, সাংবাদিক নাদিম হত্যার বিচারকার্যটি সাগর-রুনির মতো দেখতে চাইনা । দ্রুত সময়ের মধ্যে ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদুল আলম বাবুসহ নির্মম ওই হত্যার সাথে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভাবে জড়িত সবাইকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে।
তারা আরো বলেন একটি রাষ্ট্রের স্তম্ভ সংসদ, প্রশাসন বিভাগ ও বিচার বিভাগ। ঠিক এর মতোই গুরুত্বপূর্ণ স্তম্ভ সংবাদপত্র বা গণমাধ্যম। যা রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভ হিসেবে পরিচিত।
রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভকে থামিয়ে দিতে যুগ যুগ ধরে ষড়যন্ত্র করে আসছে দুষ্কৃতকারীরা। দেশ গড়ায় নিয়োজিত,সত্য বলা সংবাদ কর্মীদের মুখ চিরতরে বন্ধ করার জন্য তাদের অপহরণ করা হচ্ছে,মেরে ফেলে কণ্ঠ রোধ করা হচ্ছে। আমাদের দাবি সংবাদ কর্মীদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দিতে হবে। এবং এযাবৎ কালে যত সংবাদকর্মীদের হত্যা করা হয়েছে প্রত্যেকটি হত্যাকান্ডের বিচার বিশেষ আদালতে দ্রুত বিচার আইনে করতে হবে।
হত্যাকারীদের দৃষ্টান্ত মূলক বিচার না হওয়া পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলমান থাকবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Our Like Page